ঢাকা, আজ শুক্রবার, ৫ মার্চ ২০২১

শেষমেশ পদত্যাগে বাধ্য হলো ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক

প্রকাশ: ২০১৯-০৯-১৫ ০৭:৩৪:০৩ || আপডেট: ২০১৯-০৯-১৫ ০৭:৩৪:০৩

ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের পদ হারালেন শোভন-রাব্বানী। ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে ভারপ্রাপ্ত হিসেবে দায়িত্ব পাবেন সংগঠনটির কেন্দ্রীয় দুই নেতা।শনিবার রাতে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভার পর এমন তথ্য জানা যায়।

দলটির সম্পাদকমণ্ডলীর একাধিক নেতা দাবি করেন, বর্তমান সভাপতি মো. রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীকে সরিয়ে ভারপ্রাপ্ত হিসেবে কেন্দ্রীয় দুই নেতাকে শীর্ষ দুই দায়িত্ব দেয়া হবে।

সেক্ষেত্রে সংগঠনের ১ নম্বর সহ-সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও ১ নম্বর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পেতে পারেন।
কুড়িয়ে পাওয়া দুই লাখ টাকা ফিরিয়ে দিয়ে সততার নজির গড়লেন স্কুলছাত্রী

খুলনার নবম শ্রেণির ছাত্রী মম মল্লিক (১৪)কুড়িয়ে পাওয়া দুই লাখ টাকা ফিরিয়ে দিয়ে সততার নজির গড়লেন । জেলার বটিয়াঘাটা উপজেলার হোগলবুনিয়া হাটবাটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রী তিনি।

শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বিকেলে মম বলেন, ‘সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) সকালে আমার প্রাইভেট পড়া ছিল। সেজন্য আমি বাড়ি থেকে বের হই। এরপর আমি ভ্যানে করে বটিয়াঘাটা বাজারে যাই। বাজার দিয়ে যাওয়ার সময় রাস্তার পাশে একটি ব্যাগ দেখতে পাই। ভ্যান থেকে নেমে ব্যাগটি খুলে দেখি এর ভেতর টাকা রয়েছে। আমি তাড়াতাড়ি ব্যাগটি বন্ধ করে নিয়ে থানায় যাই।’

‘থানায় গিয়ে দেখি ব্যাগের মালিকরা থানাতেই রয়েছে। আমাকে জিজ্ঞেস করল, আমি ব্যাগটি কোথায় পেয়েছি। আমি বললাম। পরে পুলিশ মালিকদের কাছে জানতে চাইল যে, টাকাগুলো যে তাদের, সেটির প্রমাণস্বরূপ কী আছে?

তখন তারা ব্যাগে থাকা টাকার পরিমাণ ও কিছু কাগজপত্রের কথা বলল। তারপর পুলিশ মিলিয়ে দেখে ঠিক আছে। পরে সেই ব্যক্তিদের ব্যাগসহ টাকা দিয়ে দেয়া হয়।’

মম মল্লিকের বাবা অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য শঙ্কর মল্লিক। মেয়ের এমন সততায় বাবা হিসেবে তিনি গর্বিত।

এদিকে স্কুলছাত্রীর সততায় মুগ্ধ হয়েছেন বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরাও।

হোগলবুনিয়া হাটবাটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক সুজিৎ কুমার রায় বলেন, ‘আমাদের ছাত্রী মম মল্লিক একটি টাকাভর্তি ব্যাগ পায়। এরপর সে ব্যাগটিসহ থানায় গিয়ে টাকাটা প্রাপককে দেয়।

আমরা শ্রেণিকক্ষে সব সময় শিক্ষার্থীদেরকে বলি, তোমরা সব সময় সৎ পথে থাকবা, সত্য কথা বলবা, ভালো ব্যবহার করবা। আমাদের উপদেশগুলো তার মনে গেঁথে গেছে। আর সেই উপদেশের ভিত্তিতেই সে অনেক বড় একটি কাজ করেছে।’