ঢাকা, আজ বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১

মুসলিমদের ধর্মানুভূতিতে আঘাতের অভিযোগে হিন্দু কলেজ ছাত্রীকে কোরআন বিলির নির্দেশ ভারতের আদালতের

প্রকাশ: ২০১৯-০৭-১৮ ০১:৪৬:৩৪ || আপডেট: ২০১৯-০৭-১৮ ০১:৪৬:৩৪

ভারতের ঝাড়খণ্ডে হিন্দু ধর্মাবলম্বী এক কলেজ ছাত্রীকে পাঁচটি কোরান কিনে একটি ইসলামিক সংগঠনে গিয়ে তা বিলি করতে নির্দেশ দিয়েছে রাজ্যের একটি আদালত।ওই ছাত্রীর একটি ফেসবুক পোস্ট মুসলিমদের ধর্মানুভূতিতে আঘাত হেনেছে – এমন অভিযোগ পেয়ে পুলিশ রিচা প্যাটেল নামের ওই ছাত্রীকে গ্রেপ্তার করে।

পরে জামিনের শর্ত হিসাবে কোরান বিলি করার নির্দেশ দেয় আদালত।
তবে মিজ. প্যাটেল বিবিসিকে বলেছেন, “একটা ফেসবুক পোস্টের জন্য অন্য ধর্মের একটি সংগঠনে গিয়ে কোরান বিলি করার নির্দেশে আমার খুবই অস্বস্তি হচ্ছে।”

“আদালতের নির্দেশকে সম্মান জানিয়েও বলতে বাধ্য হচ্ছি, এটা তো আমার মৌলিক অধিকার হরণ করা হচ্ছে! আমি উচ্চতর আদালতে যাওয়ার কথা ভাবছি।”
“ফেসবুকে আমি আমার নিজের ধর্ম নিয়ে কিছু লিখতে পারব না?

এ কোথাকার নিয়ম? তার জন্য আমার মতো একজন কলেজ ছাত্রীকে গ্রেপ্তার করা হবে?” প্রশ্ন রিচা প্যাটেলের।
তার দাবি, যে ফেসবুক পোস্ট শেয়ার করার জন্য পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করেছিল, সেটা তিনি ‘নরেন্দ্র মোদী ফ্যানস ক্লাব’ নামের একটা গ্রুপ থেকে কপি করেছিলেন।

ওই পোস্টে ইসলাম-বিরোধী কোনও কথাই ছিল না বলেও তার দাবি।
মুসলমানদের সামাজিক সংগঠন ‘আঞ্জুমান ইসলামিয়া’-র প্রধান মনসুর খলিফা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছিলেন।

তার অভিযোগ, রিচা প্যাটেলের ফেসবুক আর হোয়াটসঅ্যাপ পোস্টের ফলে ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের ‘অনুভূতিতে আঘাত লেগেছে’।
এর ফলে সম্প্রীতির পরিবেশ নষ্ট হতে পারে বলেও তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন।
অভিযোগ পেয়ে ১২ই জুলাই সন্ধ্যায় রিচা প্যাটেলকে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে পাঠায় পুলিশ।

আরো সংবাদ

আগে ইমরানের সমালোচক ছিলাম, এবার ভক্ত হলাম: ভারতীয় বিচারপতি

আগে ইমরানের সমালোচক ছিলাম, এবার ভক্ত হলাম: ভারতীয় বিচারপতিভারতের সুপ্রিম কোর্টের সাবেক বিচারপতি মারকান্দে কাতজু পাকিস্তানের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সমালোচক ছিলেন। তবে এবার তিনি ইমরানের ভক্ত হয়ে গেছেন বলে জানিয়েছেন। ভারত-পাকিস্তান চলমান উত্তেজনায় ইমরান খান সংযত হয়ে কথা বলায় এবং বুদ্ধিদীপ্ত সিদ্ধান্ত নেয়ায় তিনি ইমরানের প্রশংসা করেছেন। কাতজু মনে করেন, এতে দুটি দেশের মধ্যে উত্তেজনা হ্রাস পাবে।

এ সম্পর্কে এক টুইটার পোস্টে তিনি লিখেন, আমি শুরুতে ইমরান খানের সমালোচক ছিলাম। কিন্তু টিভিতে তার সংযত বক্তব্য শুনে আমি তার ভক্ত হয়ে গেছি। এর আগে ইমরান খান ঘোষণা দেন, পাকিস্তানে আটক ভারতীয় বিমানবাহিনীর সদস্য অভিনন্দনকে ‘শান্তির বার্তা’ হিসেবে ছেড়ে দেয়া হবে। আজ তাকে ছেড়ে দেয়ার কথা রয়েছে।

প্রসঙ্গত, ১৪ ফেব্রুয়ারি জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় আত্মঘাতী বোমা হামলায় ভারতীয় আধাসামরিক বাহিনীর অন্তত ৪০ জন সদস্য নিহত হয়। এ নিয়ে ভারতজুড়ে শুরু হয় পাকিস্তানবিরোধী বিক্ষোভ। পরবর্তীতে ভারতের যুদ্ধবিমান পাকিস্তানে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক চালাতে গেলে ভারত-পাকিস্তান উত্তেজনা নতুন রূপ নেয়।

গত বুধবার ভারতের দুটি যুদ্ধবিমান গুলি করে ভূপাতিত করে পাকিস্তান। তখন একজন পাইলটকে আটক করে করাচি এবং তার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করে। ভারত শুরুতে পাইলট আটকের বিষয়টি অস্বীকার করলেও শেষ পর্যন্ত স্বীকার করে নেয়। আজ অভিনন্দন নামের সেই পাইলটকে মুক্তি দেয়ার কথা রয়েছে।