ঢাকা, আজ শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০

ঢাকা-১৮ আসনে গণসংযোগে বিএনপির কফিলউদ্দিন

প্রকাশ: ২০২০-০৮-২৬ ২২:১৭:৩৬ || আপডেট: ২০২০-০৮-২৬ ২২:১৭:৩৬

ঢাকা-১৮ আসনে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের সঙ্গে মতবিনিময় শুরু করেছেন উত্তর বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম কফিল উদ্দিন আহম্মেদ। বিভিন্ন ওয়ার্ডে নিয়মিত উঠান বৈঠক, গণসংযোগ ও মতবিনিময় সভা করছেন। ধানের শীষের প্রার্থী হিসেবে এ উপনির্বাচনে সবুজ সংকেতের অপেক্ষায় তিনি।
null

null

null
মঙ্গলবারও রাজধানীর ৬ নম্বর সেক্টরসংলগ্ন ফায়েদাবাদ চৌরাস্তা ও টিআইসি কলোনিতে পথসভা করা হয়। পরে ফায়েদাবাদ চৌরাস্তায় নেতাকর্মীদের নিয়ে গণসংযোগ করেন কফিল উদ্দিন আহম্মেদ। টিআইসি কলোনি হয়ে রশীদ সুপার মার্কেটে গিয়ে গণসংযোগ শেষ হয়।
null

null

null
এর আগে সোমবার ৫০ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপি ও অঙ্গসংগঠন আয়োজিত দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের রোগমুক্তি কামনায় আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিতnull

null

null ছিলেন কফিল উদ্দিন আহম্মেদ। এরপর নিখোঁজ বিমানবন্দর ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন মুন্নার বাসায় গিয়ে তার মাকে সান্ত্বনা দেন কফিল উদ্দিন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-১৮ আসনে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন। এবার সেখানে কফিল উদ্দিন আহম্মেদ ছাড়াও বিএনপির আরও তিনজন প্রার্থী ভোটnull

null

null করতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। তারা হলেন- ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সহ-সভাপতি মোস্তাফিজুর রজমান সেগুন, বিএনপিপন্থী ব্যবসায়ী নেতা বাহাউদ্দীন সাদী ও ঢাকা মহানগর উত্তর যুবদলের সভাপতি এসএম জাহাঙ্গীর হোসেন। অন্য প্রার্থীরা এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে মাঠে নামেননি।null

null

null

মঙ্গলবার গণসংযোগে কফিল উদ্দিন আহম্মেদ বলেন, ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনে ভোটের দিনক্ষণ পেছানোয় কোনো ক্ষতি হয়নি। এ সময়ে আমরা আরও প্রস্তুতি নিতে পারব। আমাদের যেখানে সাংগঠনিক দুর্বলতা আছে, কোথাও বিভেদ থাকলে সেটাও মিটিয়ে ফেলা সম্ভব। দলকে আরও বেশি গুছিয়ে সবাইকে নিয়ে মাঠে নামারও সুযোগও হয়েছে। তবে দীর্ঘদিন null

null

nullধরে আমাদের নেতাকর্মীরা মামলা-হামলার কারণে এলাকায় আসতে পারেননি। তারা এলাকা থেকে বিচ্ছিন্ন ছিলেন। সামনে উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে নেতাকর্মীরা করোনাভাইরাসের ভেতরেও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে স্বাস্থ্যবিধি মেনে আমার পক্ষে মাঠে সক্রিয় রয়েছেন। আমরা এই সংসদীয় আসনেরnull

null

null বিভিন্ন স্থানে গণসংযোগ করছি। নেতাকর্মীদের মধ্যে যারা এলাকাছাড়া তারাও এলাকায় আসছেন। এতে এলাকায় একটি ভোট উৎসব বিরাজ করছে। আমরা আশাবাদী দিন যত যাবে আমাদের নেতাকর্মীরা তত সুসংগঠিত হবে।

তিনি আরও বলেন, নিকট অতীতে নির্বাচন কমিশনের প্রশ্নবিদ্ধ ভূমিকায় তারা সারা জাতির null

null

nullআস্থা হারিয়েছে। দিনের ভোট আগের দিন রাতে করে সারাবিশ্বেই তারা কালিমা লেপন করেছে। আশা করি, আসন্ন নির্বাচনে তারা নিরপেক্ষ ভূমিকা পালন করবেন। জনগণকে তাদের সাংবিধানিক ভোটাধিকার প্রয়োগের পরিবেশ সৃষ্টি করবেন। সুষ্ঠু ভোট হলে আমি ধানের শীষের প্রার্থী হিসেবে এ আসনটি null

null

nullবিএনপিকে উপহার দিতে চাই। এ আসনে ধানের শীষের বিজয় অনিবার্য। আশা করি, দল আমাকে সেই সুযোগ প্রদান করবে।