ঢাকা, আজ বৃহস্পতিবার, ৬ আগস্ট ২০২০

ক্লান্ত হয়ে বসে পড়েছেন করোনা-যো’দ্ধা নার্স, ছবি ভাইরাল, কুর্নিশ জানাই

প্রকাশ: ২০২০-০৭-১০ ১৬:০৬:০৪ || আপডেট: ২০২০-০৭-১০ ১৬:০৬:০৪

ক্লান্ত হয়ে বসে পড়েছেন করোনা-যো’দ্ধা নার্স, ছবি ভাইরাল, কুর্নিশ জানাই
আন্তর্জাতিক ডেস্ক : প্রতিপদে মৃ’ত্যুর হাতছানি, নেই যথেষ্ট সুরক্ষার কোনও রক্ষাকবচ। তবু ওঁদের কাজ মানুষ বাঁ’চানো। করোনা-কালে পিপিই পরা ডাক্তার-নার্সরাই যেন হয়ে উঠেছেন ঈশ্বরের রূপ। এমনই এক নার্সের খোঁ’জ মিলল অসমে। যেখানে ৩২ ডিগ্রির তাতাপোড়া গরমেও null

null

nullপিপিই পরে আছেন একজন নার্স। কিন্তু ক্লান্ত হয়ে পড়েছেন। স্বাভাবিক। এই ধকল কজনই বা সামলাতে পারেন? তাই ক্লান্ত হয়ে বসে পড়েছেন তিনি।

ওই নার্সের ছবিটি ট্যুইটারে শেয়ার করেছেন অসমের মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা। লিখেছেন, ‘আমি আমার টিমকে নিয়ে গর্বিত।’ বস্তুত অসমের null

null

nullগুয়াহাটিতে করোনাভাইরাসের সং’ক্রমণ ক্রমেই লাগামছাড়া হয়ে উঠছে। গোটা উত্তর-পূর্ব ভারতে এখন সর্ববৃহত্‍‌ হটস্পট অসমের গুয়াহাটি। একেকদিনে সেখানে কমবেশি ৫০০-৭০০ রোগী ধরা পড়ছে শুধু গুয়াহাটিতেই। গত রবিবার, ৫ জুলাই, শুধু গুয়াহাটিতেই রেকর্ড ৭৭৭ জনের সং’ক্রমণ ধরা পড়েছে। তাই গুয়াহাটি থেকে প্রবেশের ক্ষেত্রে null

null

nullনিষে’ধাজ্ঞা জারি করেছে অসমের ১০ জেলা প্রশাসন।

কিন্তু এই মারাত্ম’ক প’রিস্থিতিতেও দিনরাত মৃ’ত্যুর সঙ্গে যু’দ্ধ করে মানুষের প্রাণ বাঁ’চাচ্ছেন চিকিৎসক-নার্সরা। তাঁদের কাজে কিন্তু খামতি থাকছে না কোনও। তিনসুকিয়া, ডিব্রুগড়, মরিগাঁও, নগাঁও, কোকরাঝড়, সোনিতপুর, বিশ্বনাথ, নলবাড়ি, বরপেটা ও সালমারাতেও ধীরেধীরেnull

null

null ছড়াচ্ছে সং’ক্রমণ।

ইতোমধ্যে দিল্লির মতো শহরে পিপিই কিট নিয়ে বি’ক্ষোভও দেখিয়েছেন নার্সরা। একদিকে মিলছে না পর্যাপ্ত পিপিই কিট-মাস্ক, অন্য দিকে, স্বাস্থ্যকর্মীদের বাতিল করা পিপিই কিট ও মাস্ক স্তূপাকারে জমা হচ্ছে হাসপাতালেই! চূ’ড়ান্ত অব্যবস্থার বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছিলেন নয়াদিল্লিnull

null

null এইমসের চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। সেই অবস্থা যাতে আর কোথাও না হয়, তা নিয়ে আবেদনও জানিয়েছেন চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মীরা।-এই সময়