ঢাকা, আজ বৃহস্পতিবার, ৬ আগস্ট ২০২০

বহির্বিশ্বে বড় ধরনের ‘বিপ’দের মুখে’ পড়তে যাচ্ছে বাংলাদেশ: রিজভী

প্রকাশ: ২০২০-০৭-১০ ১৫:৫২:২৪ || আপডেট: ২০২০-০৭-১০ ১৫:৫২:২৪

বহির্বিশ্বে বড় ধরনের ‘বিপ’দের মুখে’ পড়তে যাচ্ছে বাংলাদেশ: রিজভী
নিউজ ডেস্ক : বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ইতালির মূলধারার গণমাধ্যমগুলোতে বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের ভু’য়া সার্টিফিকেট কেনাবেচা নিয়ে নেতিবাচক খবর প্রকাশিত হয়েছে। ফলে বহির্বিশ্বে বাংলাদেশ বড় ধরনের ‘বিপ’দের মুখে’ null

null

nullপড়তে যাচ্ছে। শুক্রবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

রিজভী বলেন, বৈশ্বিক করোনা মহামা’রী শুরুর পর থেকে বর্তমান সরকার ক্রমাগত ব্যর্থতা প্রদর্শন করে আসছে। একের পর এক এমন null

null

nullহৃ’দয়বিদারক ঘটনার মধ্যে এখন আবার করোনা টেস্ট নিয়ে ভু’য়া সার্টিফিকেট ও জালিয়াতির জন্য বিদেশের গণমাধ্যমে নেতিবাচক খবরের শিরোনাম হচ্ছে বাংলাদেশ।

‘দেশ-বিদেশের গণমাধ্যমের খবরে আরও জানা গেছে, ইতালি, চীন, জাপান, ভিয়েতনাম, কাতার, আরব আমিরাতসহ অনেকগুলো দেশ বাংলাদেশের সঙ্গে বিমান চলাচলে বি’ধিনিষে’ধ আ’রোপ করেছে।’null

null

null

তিনি বলেন, বাংলাদেশিদের ইতালিতে প্রবেশের ক্ষেত্রে সাময়িক নিষে’ধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। এটা একটা বিব্র’তকর প’রিস্থিতি। ইতালিতে বাংলাদেশিদের বাঁকা চোখে দেখা হচ্ছে। বাংলাদেশিদের বহনকারী বিমানকে বলা হচ্ছে ‘করোনা বো’মা’। এমনকি শতাধিক প্রবাসী বাংলাদেশি null

null

nullযারা গত বুধবার ইতালির রোমের বিমানবন্দরে গিয়ে পৌঁছেছিলেন, সেখানে তাদের অনেকের করোনাভাইরাস শনা’ক্ত হওয়ায় প্রায় সবাইকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

রিজভী বলেন, করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সরকার শুরু থেকেই যে ধরনের ঢিলেঢালা মনোভাব প্রদর্শন করছিল তার সমূহ বিপ’দ আঁচ করতে null

null

nullপেরে আমরা সরকারকে আগেই সতর্ক করে বলেছিলাম। আজকের বাস্তবতায় দেখতে পাচ্ছি, বিএনপির এই আশ’ঙ্কাটি এখন দুঃখজনকভাবেই সত্য হতে চলেছে।
null

null

null
বিএনপির এ নেতা বলেন, ইতালি, চীন, জাপান, ভিয়েতনাম, তুরস্ক, কাতার, আরব আমিরাতসহ বিভিন্ন দেশ বাংলাদেশের নাগরিকদেরকে তাদের দেশে ঢুকতে আ’রোপ করছে নানা বি’ধিনিষে’ধ। ইতালিতে পৌঁছার পর ১৫২ জন বাংলাদেশিকে দেশটিতে ঢু’কতে না দিয়ে এয়ারপোর্টnull

null

null থেকে ফেরত দেয়া প্রমাণ করে বাংলাদেশের ক্ষমতাসীন সরকার দেশের জনগণের স্বার্থের প্রতি কতটা উদাসীন। সরকারের দৃষ্টি শুধুই যেন প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্সের প্রতি, প্রবাসীদের স্বার্থের প্রতি নয়