ঢাকা, আজ সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

খেলতে যেয়ে পানিতে ডুবে ৩ শিশুর করুণ মৃত্যু

প্রকাশ: ২০২০-০৬-২৭ ০৯:১৯:০০ || আপডেট: ২০২০-০৬-২৭ ০৯:১৯:০০

নোয়াখালীর সেনবাগ পৌরসভা, অর্জুনতলা ইউনিয়ন ও হাতিয়া উপজেলার পৃথক স্থানে পুকুরের পানিতে ডুবে তিন শিশুর মৃত্যু হয়েছে। ঘটনায় নিহতদের পরিবারের চলছে শোকের মাতম।null

null

null

আজ শুক্রবার (২৬ জুন) দুপুরের পৃথক সময় এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হচ্ছেন, সেনবাগ পৌরসভার শহীদ উল্যার ২ বছরের মেয়ে খদিজা আক্তার, অর্জুনতলা ইউনিয়নের উত্তর মানিকপুর গ্রামের আইয়ুব আলীর ৪ বছরের মেয়ে জান্নাতুল ফেরদাউস রুপা ও হাতিয়া উপজেলার ছানন্দি null

null

nullইউনিয়নের ভূমিহীন বাজার এলাকার আব্দুর রাজ্জাকের সাড়ে ৩ বছরের মেয়ে মিমি আক্তার।

কাদরা ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো মোস্তফা বলেন, পরিবারের লোকজনের অজান্তে দুপুরের কোন এক সময় বাড়ির পুকুরে পড়ে যায়null

null

null পৌরসভা ভূঁইয়া বাড়ির খদিজা আক্তার। পরে বাড়ির লোকজন পুকুরে ভাসমান অবস্থায় খদিজাকে দেখতে পেয়ে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।null

null

null ওই শিশুর বাড়ি সেনবাগ পৌরসভা ও কাদরা ইউনিয়ন সীমান্তবর্তী এলাকায়।

সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে অর্জুনতলা ইউনিয়নের মানিকপুর গ্রামের জান্নাতুল ফেরদাউসের লাশ ভাসমান অবস্থায় null

null

nullবাড়ির পুকুর থেকে উদ্ধার করে পরিবারের লোকজন। তাদের ধারনা কোন একসময় বাড়ির বাচ্চাদের সাথে খেলতে গিয়ে পুকুরে পড়ে গিয়ে তার মৃত্যু হয়।

এদিকে জেলার হাতিয়া উপজেলার নঙ্গোলিয়া ভূমিহীন বাজার এলাকার আব্দুর রাজ্জাকের মেয়ে মিমি আক্তারকে অচেতন অবস্থায় সুবর্ণচর null

null

nullউপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পরিবারের সদস্যরা জানান, শুক্রবার দুপুরে খাওয়ার পর মা-বাবার সাথে ঘরে ঘুমিয়ে পড়ে মিমি। কিন্তু মা-বাবা ঘুমের থাকা অবস্থায় কোনnull

null

null একসময় ঘর থেকে বের হয়ে যায় মিমি। পরে তারা ঘুম থেকে জেগে মিমিকে দেখতে না পেয়ে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করার এক পর্যায়ে ঘরের পাশের পুকুরে মিমিকে ভাসতে দেখে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।