ঢাকা, আজ বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০

আমি ট্যাক্সি চালাই কিন্তু চুরি করি না: ব্যান্ডতারকা বিপ্লব

প্রকাশ: ২০২০-০৬-০৫ ০৯:১৬:০১ || আপডেট: ২০২০-০৬-০৫ ০৯:১৬:০১

বিনোদন ডেস্ক : যুগে যুগে দেশে অনেক ব্যান্ডদলের সূচনা হয়েছে। কিন্তু শ্রোতাদের মন জয় করে নিজেদের অবস্থান ধরে রাখতে পেরেছে হাতে গোনা মাত্র কয়েকটি দল। এই তালিকার শীর্ষে রয়েছে নগরবাউল, এলআরবি, মাইলস প্রমুখ। এছাড়া ‘প্রমিথিউস’ ব্যান্ডদলেরও রয়েছে বেশ জনপ্রিয়তা।

আশির দশকের জনপ্রিয় ‘প্রমিথিউস’ ব্যান্ডের প্রধান সদস্য ও ভোকাল বিল্পব। মূলত তার হাত ধরেই ১৯৮৬ সালে এই ব্যান্ডের যাত্রা শুরু হয়। পরে অসংখ্য মিক্সড ও একক গানের অ্যালবাম দর্শক-শ্রোতাদের উপহার দিয়েছে বিপ্লবের এই দলটি। সবমিলিয়ে তাদের মোট অ্যালবামের সংখ্যা ১৮টি।

তবে অজানা কারণে হঠাৎ করেই ছন্দপতন ঘটে ব্যান্ডটির। এরপর থেকেই কিছুটা লাপাত্তা হয়ে যাওয়ার মতোই লোক চক্ষুর আড়ালে চলে যান ব্যান্ডটির প্রধান ভোকাল বিপ্লব। দীর্ঘদিন ধরে ব্যান্ড জগৎ থেকে নিজেকে আড়াল করে রেখেছেন তিনি!

সম্প্রতি খোঁজ মিলেছে শ্রোতাপ্রিয় এই গায়কের। বর্তমানে স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে বিপ্লব বসবাস করছেন মার্কিন মুলুকের কুইন্স শহরে। গেল কয়েক বছর ধরে সংসারে মনোযোগী হয়েছেন তিনি। সাংসারিক হওয়াটাই স্বাভাবিক। তবে অস্বাভাবিক একটি ঘটনার জন্ম হয়েছে এই গায়কের জীবনে। আর সেটা তিনি নিজেই জানান দিয়েছেন তার ভক্তদের। এতোক্ষনে অবশ্যই জানতে ইচ্ছা করছে বিপ্লবের জীবনের সেই অস্বাভাবিক ঘটনাটির কথা। শ্রোতাপ্রিয় এই গায়ক এখন নিজের সংসার চালান নিউইয়র্ক শহরে ট্যাক্সি চালিয়ে!

বিষয়টি সম্পর্কে বিল্পব জানিয়েছেন, বিগত তিন বছর আগেই তিনি যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান। সেখানে গিয়ে প্রথমে তিনি আমেরিকান এয়ারলাইনসে চাকরি করেন৷ এর এক বছরের মাথায় গাড়ি কিনে ট্যাক্সি চালানো শুরু করেন তিনি। সেখানে স্বাধীনভাবে কাজ করছেন। ট্যাক্সি চালক বিপ্লব তার কাজকে বেশ সম্মানও করেন। কারণ তার এই কাজে কেউ খবরদারি করতে পারছেন না।

বিপ্লব আরও বলেন, আমি ট্যাক্সি জবে আছি, সে কথা বলতে সংকোচ বোধ করি না। আমি তো চুরি করছি না। মানুষদের সেবা দিচ্ছি, বিনিময়ে টাকা পাচ্ছি। এই দেশে আসার পরে আমার ধারণাই পাল্টে গিয়েছে। আমি যে ধরনের জীবন পরিচালনা করতাম সেখান থেকে বেরি এসে, এখন যেভাবে আছি সেটাই আমার কাছে বাস্তব এবং সেরা মনে হচ্ছে।

তবে শত ব্যস্ততার মাঝেও গান গাওয়া ছেড়ে দেননি এই শিল্পী। সুযোগ পেলেই নতুন গানের কথা লেখেন এবং সুর তোলার চেষ্টা করেন। পাশাপাশি মাঝে মধ্যে বিভিন্ন কনসার্টেও অংশ নেন তিনি।