ঢাকা, আজ শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০

বন্ধ মেসে বই-খাতা নিতে এসে লা’শ’ হলেন কলেজছাত্রী অর্পি’তা

প্রকাশ: ২০২০-০৫-২৪ ১২:২৭:৪৫ || আপডেট: ২০২০-০৫-২৪ ১২:২৭:৪৫

বন্ধ মেসে রেখে আসা বই-খা’তাসহ প্র’য়োজ’নীয় জিনিসপত্র নিতে এসে লা’শ’ হয়ে ফিরে গেলেন বগু’ড়া সর’রি আজি’জুল হক কলে’জের ছা’ত্রী অর্পি’তা সাহা। রোববা’র সকাল সোয়া ৯টার দিকে বগুড়ার শেরপু’রে ঢাকা-বগুড়া মহা’সড়’কে ট্রা’কের চা’পায় প্রা’ণ যায় অ’টোরি’কশার যাত্রী অ’র্পিতার। ওই একই দুর্ঘ’টনা’য় ‘প্রা’ণ হারা’ন অ’টোরি’কশার আরেক যা’ত্রী শের’পুর উপজেলার শে’রুয়া কা’নাইকান্দো গ্রা’মের সুলতান আহমে”দের স্ত্রী নীলা পা’রভিন নামে আরও এক গৃ’হব’ধূ। হাইওয়ে পু’লিশের শে’রপুর ফাঁ’ড়ির null
null
nullইন’চার্জ সাব ই’ন্সপেক্টর আশরা’ফুল ইস’লাম জানান, সকাল সো’য়া ৯টার দিকে উপজে’লার শে’রুয়া কৃ’ষ্ণপুর যমু’নাপাড়া এলা’কায় ঢাকা’গামী একটি ট্রাক বগু’ড়ার দিকে আসা সিএ’নজি চালি’ত একটি অ’টোরিক’শাকে চা’পা দিলে হ’তাহ’তে’র ঘটনা ঘটে। তিনি বলে’ন, ট্রা’ক চা’পায় অটোরি’কশাটি দুম’ড়ে-মুচ’ড়ে যায়। এতে ঘট’না’স্থলেই null
null
nullসিএনজি চালিত অটো’রিকশার যা’ত্রী নীলা পার’ভিন নি’হত হন। আহ’ত হন ভে’তরে থাকা তিন যা’ত্রী। শেরপু’র ফা’য়ার সা’র্ভিসের স্টেশন অফি’সার রতন হোসেন জানান, আ’হত’দের উ’দ্ধার করে নিকট’বর্তী শের’পুর উপজেলা স্বা’স্থ্য কমপ্লে’ক্সে নেও’য়া হয়। সে’খান থেকে অ্যা’ম্বুলে’ন্সে করে বগু’ড়া শহীদ জিয়া’উর রহমান null
null
nullমেডি’কেল কলেজ (শজিমেক) হাস’পাতালে পাঠানো হয়। তবে শজি’মেক হাসপাতা’লে নেওয়ার পর পরই চিকিৎসকরা অর্পি’তা সাহা’কে মৃ’ত ঘো’ষণা করেন। নি’হত কলেজ ছা’ত্রী অ’র্পিতা সাহা বগু’ড়ায় সরকা’রি আজি’জুল হক কলে’জের অদূরে সেউ’জগাড়ি পাল’পাড়া এলাকায় ‘ইস’লাম মঞ্জিল’ নামে একটি মেসে থে’কে পড়ালেখা করতে’ন বলে জানি’য়েছেন ওই একই মেসে’র ছা’ত্রী দি’থী রাণী। বর্তমা’নে বাড়ি’তে অব’স্থানরত দিথী রাণী জা’নায়, অ’র্পিতারnull
null
null বা’ড়ি ধুনট উপজেলা’র মথুরাপু’র গ্রামে। ছাত্রী তিনি ওই গ্রা’মের জীবন সাহার মেয়ে। করো’না সংক্র’মণ ঠেকা’তে গত ১৯ মার্চ মে’স ব’ন্ধ ঘোষ’ণার পর সব শিক্ষা’র্থী বা’ড়ি চলে যান। তিনি ব’লেন, ‘স’কালে অন্য এক ‘সহপা’ঠীর মা’ধ্যমে অর্পিতা সা’হার মৃ’ত্যু’র খ’বর পাই। অর্পি’তা কাল (শনিবার) ম্যা’সেঞ্জারে জা”নিয়েছিল মেস থেকে বই-খা’তাসহ প্রয়ো’জনীয় জিনি’সপত্র নিতে আজ (রোববার) বগুড়া আস’বেন। কিন্তু তার আ’গেই তিনি লা’শ’ হয়ে গে’লেনnull
null
null। এটা মে’নে নিতে খু’ব ক’ষ্ট হচ্ছে।’ বগু’ড়ায় হাই’য়ে পুলিশের শেরপুর ফাঁ’ড়ির ইনচার্জ সাব ইন্স’পেক্টর আশরা’ফুল ইস’লাম ‘জানান, চালক-ট্রাক’টি নিয়ে পা’লিয়ে গে’ছে। এ ঘটনা মা’ম’লা হবে।আন্তর্জাতিক ডেস্ক : পাকিস্তানের করাচিতে গতকাল শুক্রবার ৯৯ জন যাত্রী নিয়ে বিধ্বস্ত হয় একটি উড়োজাহাজ। এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৯৭ জনই মারা গেছেন। তবে এমন বড় দুর্ঘটনার পরেও ভাগ্য জোরে বেঁচে গেছেন ওই উড়োজাহাজে থাকা দুজন। null
null
nullতাদের একজনই শুনিয়েছেন উড়োজাহাজ দুর্ঘটনার লোমহর্ষক বর্ণনা। পাকিস্তানে উড়োজাহাজ দুর্ঘটনায় বেঁচে যাওয়া মুহাম্মেদ জুবায়ের। জানা গেছে, পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটটিতে যাত্রীরা ঈদের ছুটিতে লাহোর থেকে করাচি যাচ্ছিলেন। উড়োজাহাজটি করাচির জিন্নাহ আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে নামানোর চেষ্টাকালে পাকিস্তান স্থানীয় সময় দুপুর ২টা ৩০ মিনিটের দিকে বিধ্বস্ত হয়। মুহাম্মেদ জুবায়ের নামের বেঁচে যাওয়া ওই যাত্রী জানান,আমরা কেউই জানতাম না যেnull
null
null বিমানটি বিধ্বস্ত হবে। তারা খুব ভালোভাবেই বিমানটি পরিচালনা করছিলেন। বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার পর ১০ থেকে ১৫ মিনিট পর বের হয়ে আসেন মুহাম্মেদ জুবায়ের। তিনি বলেন, আমি সব দিক থেকে শুধু চিৎকার শুনেছি। আমি যা দেখেছি তা হলো শুধু আগুন। আমি কোন মানুষকে দেখতে পাইনি। বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার পর পরই জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন বলে জানান মুহাম্মেদ জুবায়ের। জুবায়ের বলেন, জ্ঞান ফেরার পর আমি একটু আলো দেখতে পাই। এরপর আমিnull
null
null আমার সিট বেল্ট খুলে ওই আলোর দিকে যাই। আমি প্রায় ১০ ফিট নিচে লাফ দেই বাঁচার জন্য। এদিকে এই বিমান দুর্ঘটনার কারণ এখনো জানা যায়নি। তবে পাকিস্তানের একজন সিভিল এভিয়েশন কর্মকর্তা রয়টার্সকে জানান, বিমানের আন্ডারক্যারেজ ঠিক সময়মতো না নামানোর কারণে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়েছে।