ঢাকা, আজ রোববার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

মহান আল্লাহ ও মুহাম্মদ (সা.) এর নাম খচিত ভাস্কর্য উদ্বোধন করা হলো ফেনিতে

প্রকাশ: ২০২০-০৫-২৪ ১১:০৬:২৪ || আপডেট: ২০২০-০৫-২৪ ১১:০৬:২৪

মহান আল্লাহ ও মুহাম্মদ (সা.) এর নাম খচিত ভাস্কর্য উদ্বোধন করা হলো ফেনিতে ফেনী: ফেনীতে মহান আল্লাহ ও মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) এর নাম খচিত দৃষ্টিনন্দন ভাস্কর্য তৈরি করা হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে শহরের মহিপালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক সংলগ্ন মিয়াজী বাড়ি সড়কের সম্মুখে ভাস্কর্যটি উদ্বোধন করেন ফেনী-২ আসনের সংসদ সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারী। এ সময় পৌরসভার মেয়র হাজী null
null
nullআলাউদ্দিন, প্যানেল মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী, পৌর কাউন্সিলর লুৎফুর রহমান খোকন হাজারী, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সাহাব উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক নাছির খান, পৌর যুবলীগ সহ-সভাপতি তৌহিদুর রহমান হানিফ ও ফেনী সরকারি কলেজ ছাত্র সংসদ জিএস রবিউল হক রবিন null
null
nullপ্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। ফেনী পৌরসভার অর্থায়নে ১৪ ফুট উচ্চতার ভাস্কর্যটি নির্মাণ করেছেন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান বেস্ট কনস্ট্রাকশন। এর সুউচ্চে আরবি অক্ষরে ‘আল্লাহু’ ও ‘মুহাম্মদ’ লেখা রয়েছে। রাতে আলোর ঝলকানিতে পানির ফোয়ারায় সৌন্দর্যে বাড়তি মাত্রা যোগ হবে। ভাস্কর্যটি নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ১০ লাখ টাকা। এ বিষেয়ে ফেনী পৌরসভার প্যানেল মেয়র নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী বলেন, ফেনী-২ আসনের সংসদ সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারীর তত্ত্বাবধানে পৌর null
null
nullকর্তৃপক্ষ ভাস্কর্য নির্মাণের উদ্যোগ নেয়। এছাড়া তার ওয়ার্ডে বিজয়সিংহ দীঘির সৌন্দর্যবর্ধনসহ বেশ কিছু উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে।
যশোর: ‘করোনা শুরুর পর থেকে কয়েক জায়গাততে কিছু সহযোগিতা পাইছি। এর আগে অন্যবারের ঈদেও সেমোই, চিনি, পাইছি কিন্তু মুরগি কেউ দিইনি। এইবারই প্রথম কেউ আমাগের মুরগি দিলো। লোকের বাড়ি কাজ করতাম। করোনার কারনে এখন কাজ বন্ধ। স্বামী রাজমিস্ত্রীর যোগালের কাজ করে। তারও কাজ বন্ধ। মুরগি পাইয়ে খুব null
null
nullভালো হইয়েছে। ঈদির দিন ছেলে-পিলের মুখি গোসত দিতি পারবানে।’ করোনার কারণে কর্মহীন দুই সন্তানের জননী বুলবুলি আজ শনিবার দুপুরে ঈদ উপহার হিসেবে পোলাওয়ের চাল, সেমাই, চিনি, দুধ, মসলার সাথে মুরগী পেয়ে খুশিতে ঝলমল চোখে কথাগুলো বললেন। ঈদে খাদ্যসামগ্রীর সাথে এমন মুরগী পেয়ে খুশি তিন সন্তানের জনক আলতাফ হোসেন। প্লাস্টিক ফেরি করে বাড়ি বাড়ি বিক্রি করেন তিনি। করোনায় তার সেই ক্ষুদ্র ব্যবসা বন্ধ। তার সাথে তার মা বাবাও থাকেন। তিনি null
null
nullবললেন, সবাই শুধু সেমোই, চিনি, চাইল, তেল, দেয়। কিন্তু ঈদির দিন ইট্টু গোসত হলি বাড়ির ছেলে পিলে কিযে খুশি হয়। ইনারা সেই গোশতর ব্যবস্থাও কইরে দিল। আল্লাহ ইনাগের ভালো করুক। শুধু বুলবুলি বা আলতাফ নয়। এমন ঈদ উপহার পেয়ে তাদের মতো খুশি যশোর শহরের পুরাতন কসবা এলাকার আরও ৫০০ কর্মহীন মানুষ। আর অসহায় কর্মহীনদের জন্য এসব খাদ্যসামগ্রীর আয়োজন করেন যশোর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগাঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম জুয়েল। করোনা null
null
nullশুরুর পর থেকে তিনি এ পর্যন্ত প্রায় ৫ হাজার কর্মহীন মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী তুলে দিয়েছেন। এ সময় এলাকার সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর নাসিমা আক্তার উপস্থিত ছিলেন। এ ব্যাপারে জুয়েল বলেন, মহামা’রী করোনা শুরুর পর মানবিক দু’র্দশা লা’ঘবে নিজ উদ্যোগে এলাকার খেটে খাওয়া মানুষের জন্য খাদ্যসামগ্রী সাবান, স্যানিটাইজার সহায়তার চেষ্টা করেছি। ব্যাক্তি উদ্যোগে সীমাবন্ধতার কারনে বেশি দূর এগোতে পারছিলাম না। এ সময় বন্ধু বান্ধব, সহৃদ, রাজনৈতিক নেতা, ধণ্যাঢ্য ব্যবসায়ী সবাই কমবেশি এগিয়ে আসেন, সে কারণে গত দুইমাসে প্রায় ৫ হাজার মানুষের কাছে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছৈ দিতে সক্ষম হয়েছি।