ঢাকা, আজ শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

বাড়ির পেছনে গাঁজার বাগান!

প্রকাশ: ২০২০-০৫-১৯ ১১:৫৮:৫২ || আপডেট: ২০২০-০৫-১৯ ১২:০১:৪৭

সুনামগঞ্জে বিশ্বম্ভরপুরের একটি গ্রামে গাঁজার বাগানের সন্ধান পেয়েছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। রোববার সকালে বাগানটি জব্দের পর গাঁজা চাষে জড়িত ওই গ্রামের এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব। গ্রেফতার ওই মাদক ব্যবসায়ীর নাম – সাত্তার মিয়া। তিনি বিশ্বম্ভরপুরের মাইাজের টেক গ্রামের বাসিন্দা। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে র‌্যাব- সিলেটের সহকারী পুলিশ সুপার (মিডিয়া) মোহাম্মদ ওবাইন যুগান্তরকে জানান, রোববার সকালে লে. কমান্ডার ফয়সল আহমদের নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি চৌকস টিম জেলার বিশ্বম্ভরপুরের null
null
nullমাইাজের টেক গ্রামে গেলে সেখানে সাত্তার মিয়ার বসতবাড়ির পেছনে চাষকৃত বাগান হতে ৪০টি গাঁজার গাছ উদ্ধার করে। একই সঙ্গে গাঁজা চাষে জড়িত থাকায় বাগান মালিক সাত্তারকে আটক করা হয়। তিনি আরও জানান, জব্দকৃত গাঁজা গাছের ওজন প্রায় ৩০ কেজি। উদ্ধারকৃত আলামতসহ গ্রেফতার মাদক ব্যবসায়ী সাত্তারকে বিশম্ভরপুর থানায় সোপর্দ করা হয়েছেপ্রচণ্ড গরম পড়ায় আমাগো খাবার পইচ্যা যেত। সেই খাবার খাইয়্যা চলত আমাদের। এখন null
null
nullআমাগো একটা ফ্রি দিল। আমাগো এখন আর পঁচা ভাত খাইতে হবে না। খাওয়ার পর যে ভাত বাঁচবো তা ফ্রিজে রাইখা দেব।’ এমনভাবেই কথাগুলো বলছিলেন কাশিয়ানী উপজেলার রাজপাট ইউনিয়নের হাইশুর বৃদ্ধাশ্রমে থাকা সত্তোরোর্ধ বৃদ্ধা ঝর্ণা বসু। তার মতোই এ বৃদ্ধাশ্রমে আছেন ১৮ জন বৃদ্ধ ও বৃদ্ধা। বৃদ্ধাশ্রমের এসব বৃদ্ধ ও বৃদ্ধাদের জন্য গোপালগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিমের পক্ষে একটি ফ্রিজ উপহার দিলেন গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নীতিশ রায়। সোমবার সকালে বৃদ্ধাশ্রমের সেবক আশুতোষ বিশ্বাসের কাছে এ ফ্রিজ হস্তান্তর করেন তিনি। এ সময় গোপালগঞ্জnull
null
null রিপোর্টাস ফোরামের সাধারণ সম্পাদক এস.এম নজরুল ইসলাম, গোপালগঞ্জ টেলিভিশন জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক রাজীব আহম্মেদ রাজু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এ বৃদ্ধাশ্রমে থাকা মঙ্গল কৃর্ত্তলীয়া নুরুজ্জামান নুরু ও ফুলমতি বেগম বলেন, অনেক সময় আমাদের খাবার বেচে যেতে। কিন্তু একটি ফ্রিজের অভাবে সে খাবার হয়তো পচে গিয়ে নষ্ট হতো না হয় ফেলে দিতে হতো। এখন আর সেটি করতে হবে না। বেচে যাওয়া খাবার ফ্রিজের রেখে পরদিন গরম করে খেতে পারবো। ফ্রিজ উপহার পেয়ে খুশি তারা। হাইশুর বৃদ্ধাশ্রমের সেবক আশুতোষ বিশ্বাস জানান, প্রায় ২২ বছর আগে মানবিক কারণে এই null
null
nullবৃদ্ধাশ্রমটি গড়ে তোলেন তিনি। এরপর থেকে নিজস্ব তহবিল ও সমাজের বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষের সহযোগিতা নিয়ে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। তবে একটি ফ্রিজের অভাবে প্রায় প্রতিদিনই রান্না করা খাবার সংরক্ষণের অভাবে নষ্ট হতো। অসহায় বাবা-মায়েদের কথা চিন্তা করে ফ্রিজ উপহার দেয়ায় ধন্যবাদ জানান তিনি। গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান নীতিশ রায় বলেন, গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার হাইশুরে অবস্থিত এই বৃদ্ধাশ্রমে ১৮ জন অসহায় বাবা-মা থাকেন। যখন জানতে পারি একটি ফ্রিজের অভাবে তাদের প্রতিদিনের খাবার নষ্ট হচ্ছে, তখনই গোপালগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্যকেnull
null
null বিষয়টি জানালে তিনি একটি ফ্রিজ উপহার দেয়ার নির্দেশ দেন। আগামীতেও এই বৃদ্ধাশ্রমের পাশে থাকার কথা জানান তিনি।কুষ্টিয়ার ছেঁউড়িয়ার মরমী সাধক বাউল সম্রাট ফকির লালন শাহের মাজারের তিনটি সিন্দুক ভেঙে চুরির ঘটনা ঘটেছে। রোববার সকালে মাজারের দায়িত্বরত খাদেম মূল দরজা খুললে তিনটি সিন্দুক ও সিসি ক্যামেরা ভাঙা অবস্থায় দেখতে পায়। ধারনামতে গত ১৪ তারিখ রাতে ঝড়ের সময় বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ থাকা অবস্থায় মাজারের ছাদের null
null
nullকারনিশ দিয়ে প্রবেশ করে এই চুরির ঘটনা ঘটে। এদিকে লালন শাহ’র মাজারের মতো দর্শনীয় স্থানে চুরির ঘটনায় মাজারের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। মাজারের খাদেম রিপন জানান, সকালে মাজারের দরজা খুলে সিন্দুকগুলোর তালা ভাঙা দেখতে পান তিনি। তিনটি সিন্দুকেরই তালা ভাঙা। সেখান থেকে সব টাকা চুরি হয়ে গেছে। লালন মাজারের ভেতরে বাউল সম্রাটের সমাধি ঘেঁষে দানবাক্স হিসেবে ওই সিন্দুকগুলো রাখা আছে। এ বিষয়ে স্থানীয়রা বলেন, নাইট গার্ড,null
null
null খাদেম ও এতো সিসি ক্যামেরাযুক্ত স্থানে অভ্যন্তরীণ কেউ জড়িত না থাকলে কিভাবে এমন চুরির হতে পারে, তা আমাদের বোধগম্য নয়। তাই অধিকতর তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের আইনের আওতায় এনে শান্তির দাবি জানাচ্ছি। তাৎক্ষণিক খবর পেয়ে কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক ও লালন একাডেমির সভাপতি আসলাম হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। তবে এতে কি পরিমান টাকা ছিল তা কেউ জানে না। প্রতিবছর লালন স্বরণোৎসবের আগে এটি খোলা হয়। তারপর আবার জেলা প্রশাসন থেকে এটি null
null
nullসিলগালা করে দেয়া হয়। বাংলাদেশ জার্নাল/এসকেপাবনার চাটমোহরে পৌর সদরের খেয়াঘাট এলাকায় সোমবার দুপুরে অভিযান চালিয়ে ২ মণ মরা মুরগীর মাংস জব্দ করা হয়েছে। সেইসাথে মুরগীর মাংস ব্যবসায়ী স্বপন আলীকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। চাটমোহর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. ইকতেখারুল ইসলাম এ অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় উপজেলা সহকারী প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা (ভিএস) ডা. মো. রোকুনুজ্জামান, উপজেলা নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শক মো. আবুল কালাম আজাদ দুলাল ও চাটমোহর থানা পুলিশের এএসআই বাবুলnull
null
null আকতার সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে উপস্থিত ছিলেন। ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. ইকতেখারুল ইসলাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পৌর সদরের খেয়াঘাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে বিলচলন ইউনিয়নের কুমারগাড়া গ্রামের মৃত আবু সাঈদের ছেলে মো. স্বপন আলীকে আটক করে ভ্রাম্যমান আদালত। পরে তার দেয়া স্বীকারোক্তিতে উদ্ধার করা হয় ২ মন বা ৮০ কেজি মরা মুরগীর মাংস। পরে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন আইনে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৩ মাসের কারাদন্ডাদেশ দেওয়া হয়। পরে জরিমানার টাকা দিয়ে মুক্তি পান ব্যবসায়ী স্বপন আলী। জব্দকৃত মাংস নষ্ট করে ফেলা হয়