ঢাকা, আজ বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০

ঘূর্ণিঝড় ‘আম্ফান’ মোকাবিলায় উপকূলীয় এলাকায় মাইকিং

প্রকাশ: ২০২০-০৫-১৮ ১৯:২৯:৩৬ || আপডেট: ২০২০-০৫-১৮ ১৯:২৯:৩৬

ঘূর্ণিঝড় ‘আম্ফান’ মোকাবিলায় বরিশালসহ উপকূলীয় এলাকায় মাইকিং শুরু করেছে ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচি (সিপিপি)। প্রস্তুত রাখা হয়েছে সিপিপি’র সদস্যদের।
null
null
null
সোমবার (১৮ মে) সকাল থেকে বরিশালসহ উপকূলীয় জেলাগুলোতে ঘূর্ণিঝড় সম্পর্কে জনসাধারণকে অবহিত করতে মাইকিং শুরু করা হয়।
null
null
null
এদিকে ঘূর্ণিঝড়ে যে কোনো ধরণের সহায়তার জন্য বরিশাল জেলায় ৬ হাজার ১৫০ জন, বরিশাল বিভাগে ২৫ হাজার ৫ জন এবং উপকূলীয় এলাকার ১৩ জেলায় ৫৫ হাজার ২৬০ জন সিপিসি কর্মী প্রস্তুত রাখা হয়েছে।
null
null
null
মাইকিং এর পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট এলাকাগুলোতে সাংকেতিক পতাকা উত্তোলন করা হয়েছে। এবার ঝড়ের সময় সাইক্লোন শেল্টার সেন্টারে আশ্রয়গ্রহণের সময় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার ব্যাপারে জনসাধারণের প্রতি অনুরোধ জানানো হচ্ছে ব‌লে জানা‌লেন ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচি (সিপিপি)’র ব‌রিশাল আঞ্চ‌লিক উপ প‌রিচালক মো. আব্দুর রশীদ।
null
null
null
এর আগে বরিশালে জেলা প্রশাসন ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় একাধিক প্রস্তুতি সভা করেছে। বরিশাল জেলায় ১ হাজার ৫১ টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রয়েছে। এসব আশ্রয়কেন্দ্রে ২ লাখ ৪০ হাজার মানুষ আশ্রয় গ্রহণ করতে পারবে। এবার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতেও আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা হবে।
null
null
null
এদিকে সোমবার দুপুর দেড়টা পর্যন্ত বরিশালে ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের কোনো প্রভাব দেখা যায়নি। গত দুদিন যাবৎ প্রচণ্ড ভ্যাপসা গরম অনুভূত হচ্ছে, রোদের তীব্রতা রয়েছে।
null
null
null