ঢাকা, আজ শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

করোনা ভীতির মধ্যেই সাভারে পোশাক শ্রমিককে তুলে নিয়ে ধর্ষণ

প্রকাশ: ২০২০-০৫-১০ ১২:১৭:১৭ || আপডেট: ২০২০-০৫-১০ ১২:২৩:৪৫

করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে ঢাকার সাভারে চলছে প্রশাসন আরোপিত লকডাউন। এরই মধ্যে সাভারে এক নারী পোশাক শ্রমিককে তুলে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

গতকাল মঙ্গলবার রাতে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের বলিয়ারপুর ব্রিজের নিচে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় আজ বুধবার সকালে ওই নারী নিজে বাদী হয়ে সাভার মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার দায়ে পুলিশ ইব্রাহিম নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে। অভিযুক্ত আরেক যুবক বলিয়ারপুর এলাকার নাগরকোন্ডা গ্রামের খলিল উদ্দিনের ছেলে রাব্বি।

নারী পোশাক শ্রমিক ও পুলিশ জানায়, গতকাল মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে বাসা পরিবর্তনের জন্য ওই নারী হেমায়েতপুরের চলন্তিকা হাউজিং এলাকা থেকে জিনিসপত্র নিয়ে জয়নাবাড়ীর দিকে রওনা দেয়। পরে তিনি পাশের ম্যাক্সকম বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এসে পৌঁছালে দুই যুবক তার গতিরোধ করে। পরে তারা একটি অটোরিকশায় করে নারী শ্রমিককে তুলে বলিয়ারপুর এলাকায় নিয়ে সেখানে।

এরপর ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের বলিয়ারপুর ব্রিজের নিচে নিয়ে ওই নারীর ওপর চালানো হয় পাশবিক নির্যাতন। পরে নারী শ্রমিককে ভয়ভীতি দেখিয়ে যুবকরা ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়।

ধর্ষণ ও মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সাভার মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) সাইফুল ইসলাম। তিনি জানান, এ ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ছাড়া ঘটনার সঙ্গে জড়িত অপরজনকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।সুখবর,যুক্তরাষ্ট্র প্রথম করোনার ওষুধ অনুমোদন দিল ।করোনা চিকিৎসায় জরুরি ভিত্তিতে রেমডেসিভির ওষুধকে অনুমোদন দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ফুড অ্যান্ড ড্রাগ এডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ)।

প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প এ ঘোষণা দিয়েছেন। এটাই হবে এই মহামারি সৃষ্টিকারী ভাইরাসের বিরুদ্ধে চিকিৎসায় প্রথম কোনো গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ ওষুধ।

উৎপাদনকারী কোম্পানি জিলিড ১৫ লাখ ডেমডিসিভির স্যাম্পল সরবরাহ দেবে বলে বলা হয়েছে। ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স বলেছেন, এই সোমবার থেকেই যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন হাসপাতালে বিতরণ করা হবে এই ওষুধ।

এই ওষুধটি মূলত বানানো হয়েছিল ইবোলা চিকিৎসার জন্য। তবে এই ওষুধটির ব্যবহার নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে চীন।

এতে বলা হয়, ১ লা মে হোয়াইট হাউজের ওভাল অফিসে এক বৈঠকে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এই ওষুধটি অনুমোদন দেয়ার ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, জিলিড সায়েন্স ইঙ্ক যে রেমডেসিভির ওষুধ উৎপাদন করেছে তা অনুমোদন করেছে ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ)।

জিলিড সায়েন্সের প্রধান নির্বাহী ডানিয়েল ও’ডের মতে, কোভিড-১৯ মোকাবিলায় এফডিএ’র এ সিদ্ধান্ত অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি পদক্ষেপ। তার কোম্পানি করোনা আক্রান্ত রোগীদের সাহায্য করতে ওষুধটির ১৫ লাখ স্যাম্পল সরবরাহ করছে।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের চিকিৎসা বিশেষজ্ঞরা এ ওষুধ নিয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তারা মনে করেন, এই ওষুধটি করোনা রোগের চিকিৎসায় ফলপ্রসূ হতে পারে।

এর দুই দিন পর এফডিএ এই জরুরি অনুমোদন দিল। বুধবার হোয়াইট হাউজের বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছিলেন, ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে দেখা গেছে, এ ওষুধ প্রয়োগ করার ফলে ৩০ শতাংশ রোগী খুব দ্রুত সেরে উঠছেন। রেমডিসিভির প্রয়োগে রোগীর সুস্থ হওয়ার সময় ১৫ দিন থেকে ১১ দিনে নেমে এসেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি এস ফাউসি এ ওষুধটির ব্যাপারে বলেছেন, ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে পাওয়া তথ্য দেখা পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে, করোনা থেকে দ্রুত সেরে ওঠার ক্ষেত্রে রেমডিসিভির কার্যকর।

গত বছরের ডিসেম্বর থেকে সংক্রমণ শুরু হওয়া নভেল করোনাভাইরাস প্রতিরোধে এখন পর্যন্ত কোন ভ্যাকসিন আবিষ্কার হয়নি। তবে জাপানের অ্যাভিগানসহ কিছু ওষুধ কোভিড-১৯ রোগের চিকিৎসায় কার্যকর বলে নানা সময়ে জানা গেছে।

এসব ওষুধ এখনও ট্রায়ালের বিভিন্ন পর্যায়ে রয়েছে। তবে এবার ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল চলতি অবস্থায় এই প্রথম কোন ওষুধ করোনাভাইরাসের চিকিৎসায় অনুমোদিত হল।

বিবিসি ও বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর দিয়েছে।

আরও পড়ুন

এক টুকরা লেবুতেই ধ্বংস হবে করোনাভাইরাস: জানালেন বিজ্ঞানী

#ইফতিবাংলাদেশ টেলিভিশনের (বিটিভি) মহাপরিচালক এমএম হারুন অর রশীদ ও তার স্ত্রী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। গত রবিবার রাতে হারুন নিজেই গণমাধ্যমে এ তথ্য জানিয়ে বলেন, কয়েকদিন ধরেই জ্বরে ভুগছিলাম। শুক্রবার আইইডিসিআর থেকে লোক এসে আমার ও আমার স্ত্রীর নমুনা সংগ্রহ করে নিয়ে যায়। শনিবার রাতে তারা জানান, আমাদের দুজনের শরীরে করোনাভাইরাস ‘পজিটিভ’ শনাক্ত হয়েছে।

তিনি আরও জানান, রবিবার আইইডিসিআর থেকে লোক এসে তার মেয়ের নমুনা সংগ্রহ করে নিয়ে গেছে। সোমবার তার রিপোর্ট আসবে।

এদিকে বিটিভির এক কর্মকর্তার সূত্রে জানা গেছে, মহাপরিচালক হারুন অর রশীদ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এমন সংবাদের পর পর তার সংস্পর্শে আসা বিটিভির কয়েকজন কর্মীকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। এ কারণে বিটিভির নির্ধারিত কিছু অনুষ্ঠান সম্প্রচার বাতিল করে পুরনো অনুষ্ঠান চালানো হতে পারে।

করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির মধ্যে বিটিভির বেশিরভাগ কর্মী বাসা থেকে কাজ করছেন বলে জানান ওই কর্মকর্তা।

আপনার মন্তব্য লিখুন