ঢাকা, আজ মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০

কঠিন ক্যান্সারে আক্রান্ত অমিত শাহ?

প্রকাশ: ২০২০-০৫-১০ ১১:১৭:৫১ || আপডেট: ২০২০-০৫-১০ ১১:১৭:৫১

ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে নিয়ে করা একটি টুইটে দেশটির সোশ্যাল মিডিয়ায় হইচই পড়ে গেছে। এই করোনাকালে রাজনীতির মাঠও গরম হয়ে উঠেছে।

সম্প্রতি একটি টুইটার হ্যান্ডেলে দাবি করা হয়, বোন ক্যান্সারে ভুগছেন ভারতের এই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তার আরোগ্য লাভের জন্য এই রমজাম মাসে ভারতীয় মুসলিমদের প্রার্থনা করতে অনুরোধ করা হয় ওই টুইটে।

অমিত শাহের ছবি সম্বলিত নীল টিক চিহ্নের ওই টুইটে অনেকটাই বিচলিত হয়ে পড়েন বিজেপি সমর্থিত নেটিজেনরা।

তবে ওই টুইটের কয়েক ঘণ্টার মধ্যে ভারতের সংবাদমাধ্যমগুলো খবর প্রকাশ করে টুইটারের ওই পোস্টটি ভুয়া দাবি করে।

আজ শনিবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর অ্যাকাউন্ট থেকে এ বিষয়ে একটি টুইট করে বিষয়টি ভুয়া বলে জানানো হয়।

অমিত শাহ সুস্থ আছেন জানিয়ে সেখানে বলা হয় এমন কোনো টুইট তার অ্যাকাউন্ট থেকে করা হয়নি। সম্পূর্ণ বিষয়টি ভুয়া।

টুইট পোস্টে অমিত শাহ বলেন, আমি সম্পূর্ণ সুস্থ এবং কোনো রোগে আক্রান্ত নই। গত কয়েক দিন ধরে আমার নজরে পড়েছে কিছু মানুষ আমার স্বাস্থ্য নিয়ে গুজব ছড়াচ্ছেন। অনেকে আমার মৃত্যুও কামনা করেছেন। আমি বলতে চাই কারও খারাপ স্বাস্থ্য নিয়ে গুজব রটলে তার আয়ু আরো দীর্ঘায়িত হয়।

সূত্র: এনডিটিভি, টাইমস অব ইন্ডিয়াসৌদি আরবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩৭ হাজার ছাড়িয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় মোট আক্রান্তের সর্বোচ্চ সংখ্যা মক্কা মুকাররমায় শনাক্ত হয়েছে।

শনিবার করোনা বিষয়ক বুলেটিনে সৌদি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনায় নতুন করে এক হাজার ৭০৪ জন আক্রান্ত হয়েছে। নতুন করে আক্রান্তদের মধ্যে মক্কায় সর্বোচ্চ ৪১৭ জন। এছাড়া রাজধানী রিয়াদে ৩১৬ জন, জেদ্দায় ২৬৫ জন, মদিনা মুনাওয়ারায় ১১২ জন, দাম্মামে ১১১ জন, জুবাইলে ৬৭ জন ও আল খোবারে ৫৪ জন আক্রান্ত হয়েছে।

এদিকে আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডওমিটারে দেয়া সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী, এ পর্যন্ত সৌদি আরবে ৩৭ হাজার ১৩৬ জনের শরীরে করোনাভাইরাস পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছে ১০ জন। এ পর্যন্ত মোট মৃত্যু সংখ্যা ২৩৯ জন। সুস্থ হয়েছেন ১০ হাজার ১৪৪ জন। হাসপাতালে ও হোম কেয়ারে চিকিৎসাধীন ২৬ হাজার ৭৫৩ জন। এদের মধ্যে ১৪০ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এ পর্যন্ত দেশটিতে ৪ লাখ ৩৩ হাজার ৫০০ টি নমুনা পরীক্ষায় এসব তথ্য মিলেছে।

এমন পরিস্থিতিতেও মক্কা ও ২৪ লকডাউন থাকা এলাকাগুলো ছাড়া বাকি সব জায়গায় সকাল ৯টা বিকেল ৫টা পর্যন্ত কারফিউ প্রত্যাহার করেছে সৌদি সরকার। শপিংমল খোলার অনুমতি দিয়েছে।
তবে দেশটিতে করোনার প্রকোপ বাড়তে থাকায় জনসাধারণের এক জায়গায় পাঁচজনের বেশি জড়ো হওয়ার ওপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এ নিষেধাজ্ঞা অমান্যকারীকে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে জরিমানা করা হবে।
সলাম ডেস্ক : পবিত্র রমজান মাসে রোজা পালনের নির্দেশ দিয়েছেন স্বয়ং আল্লাহ তাআলা। প্রাপ্ত বয়স্ক মুসলমান নারী-পুরুষের জন্য রোজা রাখা ফরজ। রোজা রাখার মাধ্যমে মানুষ আল্লাহর নৈকট্য ও তাকওয়া লাভে ধন্য হয়।

রোজা পালন উপলেক্ষ আল্লাহ তাআলা বলেন, ‘হে ঈমানদারগণ! তোমাদের ওপর সিয়াম বা রোজা ফরজ করা হয়েছে; যেভাবে তোমাদের পূর্ববর্তীদের ওপর ফরজ করা হয়েছিল; যাতে তোমরা তাকওয়া (আত্মশুদ্ধি) অর্জনে করতে পার। (সুরা বাকারা : আয়াত ১৮৩)

রমজানের রোজা পালনের জন্য সাহরি করা আবশ্যক। হাদিসে পাকে প্রিয়নবি সাহরি গ্রহণের তাগিদ দিয়েছেন। আবার যথাসময়ে ইফতার গ্রহণেরও তাগিদ প্রদান করেছেন।

হজরত আমর ইবনুল আস রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, আমাদের রোজা এবং আহলে কিতাব তথা ইয়াহুদি ও খ্রিস্টানদের রোজার মধ্যে পার্থক্য হলো সাহরি খাওয়া। (অর্থাৎ মুসলিমরা সাহরি খায় আর ইয়াহুদি ও খ্রিস্টানরা সাহরি খায় না)।’ (মুসলিম, নাসাঈ)

রোজা পালনে সাহরি ও ইফতারের যেমন গুরুত্ব রয়েছে তেমনি রোজার নিয়ত ও ইফতারের দোয়ার রয়েছে যথেষ্ট গুরুত্ব। সাহরি খাওয়ার পর রোজা নিয়ত করা জরুরি।

রোজার নিয়ত

نَوَيْتُ اَنْ اُصُوْمَ غَدًا مِّنْ شَهْرِ رَمْضَانَ الْمُبَارَكِ فَرْضَا لَكَ يَا اللهُ فَتَقَبَّل مِنِّى اِنَّكَ اَنْتَ السَّمِيْعُ الْعَلِيْم

আরবি নিয়ত : নাওয়াইতু আন আছুম্মা গাদাম মিন শাহরি রমাজানাল মুবারাকি ফারদাল্লাকা, ইয়া আল্লাহু ফাতাকাব্বাল মিন্নি ইন্নিকা আনতাস সামিউল আলিম।

বাংলায় নিয়ত : হে আল্লাহ! আমি আগামীকাল পবিত্র রমজানের তোমার পক্ষ থেকে নির্ধারিত ফরজ রোজা রাখার ইচ্ছা পোষণ (নিয়্যত) করলাম। অতএব তুমি আমার পক্ষ থেকে (আমার রোযা তথা পানাহার থেকে বিরত থাকাকে) কবুল কর, নিশ্চয়ই তুমি সর্বশ্রোতা ও সর্বজ্ঞানী।

ইফতারের আগ মুহূর্তে বেশি বেশি ইসতেগফার পড়া

اَسْتَغْفِرُ اللهَ الْعَظِيْم – اَلَّذِىْ لَا اِلَهَ اِلَّا هُوَ اَلْحَيُّ الْقَيُّوْمُ وَ اَتُوْبُ اِلَيْهِ لَا حَوْلَ وَ لَا قُوَّةَ اِلَّا بِاللَّهِ الْعَلِىِّ الْعَظِيْم

আসতাগফিরুল্লাহাল আজিম, আল্লাজি লা ইলাহা ইল্লাহু আল-হাইয়্যুল ক্বাইয়্যুম, ওয়া আতুবু ইলাইহি লা হাওলা ওয়ালা কুয়্যাতা ইল্লা বিল্লাহিল আলিয়্যিল আজিম।

ইফতারের সময় হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে দোয়া পড়ে ইফতার করা

اَللَّهُمَّ لَكَ صُمْتُ وَ عَلَى رِزْقِكَ وَ اَفْطَرْتُ بِرَحْمَتِكَ يَا اَرْحَمَ الرَّاحِيْمِيْن

উচ্চারণ : আল্লাহুম্মা লাকা ছুমতু ওয়া আলা রিযক্বিকা ওয়া আফতারতু বিরাহমাতিকা ইয়া আরহামার রাহিমিন।
অর্থ : হে আল্লাহ! আমি তোমারই সন্তুষ্টির জন্য রোজা রেখেছি এবং তোমারই দেয়া রিযিক্বের মাধ্যমে ইফতার করছি।

ইফতারের পর আল্লাহর শোকরিয়া আদায় করে দোয়া পড়া

হজরত আবদুল্লাহ ইবনে ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম যখন ইফতার করতেন তখন বলতেন-

ذَهَبَ الظَّمَاءُ وَابْتَلَتِ الْعُرُوْقُ وَ ثَبَتَ الْأَجْرُ اِنْ شَاءَ اللهُ

উচ্চারণ : ‘জাহাবাজ জামাউ; ওয়াবতালাতিল উ’রুকু; ওয়া ছাবাতাল আঝরূ ইনশাআল্লাহ।’
অর্থ : ‘ (ইফতারের মাধ্যমে) পিপাসা দূর হলো, শিরা-উপসিরা সিক্ত হলো এবং যদি আল্লাহ চান সাওয়াবও স্থির হলো ‘ (আবু দাউদ, মিশকাত)

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে সাহরির পর নিয়ত করা, ইফতারের আগে তাওবা-ইসতেগফার করা, ইফতারের সময় দোয়া পড়া এবং ইফতারের পর শোকরিয়া আদায় করে দোয়া পড়ার তাওফিক দান করুন। আমিন।-জাগো নিউজ