ঢাকা, আজ বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১

১ হাজার ফিলিস্তিনি শহীদ পরিবারকে ফ্রী হজ্বের সুযোগ করে দিলেন বাদশাহ আবদুল আজিজ!

প্রকাশ: ২০১৯-০৭-০৯ ১৯:২১:৩৫ || আপডেট: ২০১৯-০৭-০৯ ১৯:২১:৩৫

ফিলিস্তিন, বাদশা সালমান, শহীদ, সৌদি আরব, হজ্ব আন্তর্জাতিক ডেস্ক ফিলিস্তিনি জনগণের প্রতি সৌদি আরবের সমর্থন নতুন কিছু নয়। তবে পরিবর্তিত বিশ্ব রাজনীতির কারণে দেশটি ইসরাইলের সঙ্গেও নাকি সম্পর্ক উন্নয়ন করছেন। এসব গুঞ্জনের মাঝেই সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ ১ হাজার ফিলিস্তিনি শহীদ পরিবারের সদস্যকে বিনামূল্যে হজের সুযোগ করে দিলেন। প্রায় পৌনে এক শতাব্দীজুড়ে ইসরাইলি আগ্রাসনে বিধ্বস্ত ফিলিস্তিন। ইসরাইলি দখরদারিত্ব ও ইহুদি সেনাদের নির্যাতনে প্রাণ হারিয়ে শাহাদাত বরণ করেছেন অসংখ্য ফিলিস্তিনি। এসব ফিলিস্তিনি শহিদ পরিবার ও তাদের আত্মীয়-স্বজনদের মধ্য থেকে এবারও ১ হাজার সদস্যকে সরকারি তত্ত্বাবধানে হজ করানোর নির্দেশ দিয়েছেন সৌদি বাদশাহ।

সৌদি আরবের হজ ও ওমরা মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে ফিলিস্তিনের শহিদ পরিবারের সদস্য ও আত্মীয়-স্বজনরা সরকারি আমন্ত্রণে হজ পালন করবেন। হজ ও ওমরা বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী আবদুল লতিফ আশ শাইখ বিষয়টি তদারকি করছেন। ফিলিস্তিনি শহিদ পরিবারের সদস্যদের হজপালনের জন্য মিসর ও জর্ডান দুতাবাসের অনুমতি নিয়ে হজে আসতে হয়। তাদের হজ ভ্রমাণের যাবতীয় কাজ সহজে সম্পন্ন করতে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে জানিয়েছেন সৌদি এ প্রতিমন্ত্রী। ফিলিস্তিনি শহিদ পরিবারের প্রতি বাদশাহ সালমানের এমন উদারতাময় উদ্যোগকে ফিলিস্তিনিরা স্বাগত জানিয়েছেন। উল্লেখ্য যে, প্রতি বছরই সৌদির সরকারি ব্যবস্থাপনায় ফিলিস্তিনসহ বিশ্বের অনেক দেশের শহিদ পরিবারকে হজ ও ওমরার ব্যবস্থা করে থাকে সৌদি সরকার।

সৌদি বাদশাহ সালমানের নিজস্ব উদ্যোগে এ কার্যক্রম সম্পন্ন হয়। এ পর্যন্ত ফিলিস্তিনের ১৭ হাজার নাগরিক এ প্রকল্পের আওতায় হজ সম্পন্ন করেছেন। বিশ্বে প্রথম সুঁই-সুতোয় কুরআন তৈরি করলেন পাকিস্তানি নারী নাসিম আখতার! বিশ্বে প্রথম সুঁই-সুতোয় তৈরি হলো কুরআন- সুই-সুতোর বুননে বিশ্বের প্রথম হাতে সেলাই করা কুরআনের পাণ্ডুলিপি সম্পন্ন করেছেন পাকিস্তানি নারী নাসিম আখতার। ৩২ বছরের নিরলস চেষ্টায় তিনি এ পাণ্ডুলিপিটি তৈরি সমাপ্ত করেন। অনেক মানুষই ইসলামের জন্য কিছু করতে চান। ইসলামের প্রতি একান্ত ভালোবাসাই মানুষ অনেক কঠিন কাজ বাস্তবে রূপ দেন। এমনই একটি দুঃসাহসিক কাজ হাতে সেলাই করা কুরআনের পাণ্ডুলিপি। ৩২ বছরের নিরলস প্রচেষ্টায় নসিম আখতার বিশ্বের প্রথম হাতে লিখিত কুরআনের পাণ্ডুলিপিটি তৈরি করেছেন।

ইসলামের জন্য তাঁর প্রচেষ্টা ও ভালবাসায় আজ তিনি বিশ্ব মুসলিমের সামনে সম্মানের আসনে আসীন। নিঃসন্দেহে এটি একটি চমৎকার পরিবেশন। হাতে সেলাই করা এ কুরআনের ওজন ৬০ কেজি। এটি তুলা দিয়ে তৈরি। সোনালী রংয়ের কারুকাজ করে প্রতিটি পৃষ্ঠাকে সুসজ্জিত করা হয়েছে। কাভারে সিল্কের সুতা দ্বারা সুন্দরভাবে সজ্জিত করা হয়েছে। নাসিম আখতার যখন এই কাজ শুরু করেন তখন তিনি কম বয়সী ছিলেন। ৩২ বছরের অক্লান্ত পরিশ্রমে সুই-সুতোয় কুরআনের পাণ্ডুলিপি তৈরি করে তিনি তার স্বপ্নের বাস্তবায়ন করেন। কুরআনের অসামান্য পাণ্ডুলিপিটি সুন্দরভাবে সম্পন্ন করতে পেরে সে এক বিশাল মাইল ফলক অর্জন করেছেন। আর এ কাজে তিনি শান্তি ও স্বস্তি বোধ করেন।

নাসিম আখতারকে তার অসামান্য কাজের খবর পেয়ে সৌদি আরব তাকে আমন্ত্রণ জানায়। পবিত্র কুরআনের এ পাণ্ডুলিপিটি তারা সংরক্ষণে দায়িত্ব নেয়। নাসিম আখতারের হাতে লেখা এ পাণ্ডুলিপিটি মসজিদে নববির কুরআর সংরক্ষণ মিউজিয়ামে সংরক্ষণ করা হয়। মসজিদে নববির ৫নং গেট দিয়ে প্রবেশ করে বাম দিকে গেলেই চোখে পড়বে নাসিম আখতারের হাতে লেখা সুই-সুতোর বুননে পবিত্র কুরআনুল কারিমের তৈরি পাণ্ডুলিপিটি। আল্লাহ তাআলা নাসিক আখতারের এ কাজকে কবুল করুন। আমিন