ঢাকা, আজ শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

শাহরাস্তিতে প্রকাশ্যে দিবালোকে ব্লেড দিয়ে গৃহবধূর গলা কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা

প্রকাশ: ২০২০-০৪-৩০ ১৬:৪৯:১৩ || আপডেট: ২০২০-০৪-৩০ ১৬:৫৯:০৯

শাহরাস্তিতে এক গৃহবধূর বেস্নড দিয়ে গলা কেটেছে ও বেস্নড খাইয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বুধবার (২৯ এপ্রিল) সকাল ৯ টায় উপজেলার রায়শ্রী দক্ষিণ ইউনিয়নের কুরকামতা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওই গৃহবধূকে শাহরাস্তি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেঙ্ েনেয়া হলে কর্মরত চিকিৎসক তাকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, ঘটনার দিন সকালে ওই গ্রামের বেপারী বাড়ির রাহাতের স্ত্রী শাহীনকে (২৫) অজ্ঞাত দুই দুর্বৃত্ত বসতঘরের পেছনের দরজা দিয়ে প্রবেশ করে হাত বেঁধে ও মুখে স্কচটেপ দিয়ে পাশবিক নির্যাতনের চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়। এক পর্যায়ে ওই গৃহবধূ চিৎকার দিতে গেলে তারা বেস্নড ভেঙ্গে তার মুখের ভেতর ঢুকিয়ে দেয় এবং বেস্নড দিয়ে তার গলা কেটে দেয়। সকাল ৯ টার সময় ওই গৃহবধূর শাশুড়ি ছকিনা বেগম তাকে ডাকতে গেলে পুত্রবধূর গলাকাটা দেখে চিৎকার দেন। ওই সময় আশপাশের লোকজন ছুটে এসে ভিকটিমকে হাসপাতালে পাঠান।

সরেজমিনে ঘটনাস্থলে গেলে ওই বাড়ির লোকজন ঘটনার বর্ণনা দিয়ে আহত গৃহবধূর বক্তব্যের একটি ভিডিও ক্লিপ সাংবাদিকদের দেখান। তাতে ওই গৃহবধূ জানান, অজ্ঞাত ২জন মুখোশ পরা লোক তার ঘরে প্রবেশ করে পাশবিক নির্যাতনের চেষ্টা চালায়। এক পর্যায়ে তার মুখে বেস্নড ঢুকিয়ে ও গলা কেটে এ ঘটনা ঘটায়।

গৃহবধূর শাশুড়ি ছকিনা বেগম জানান, সকাল ৯টার সময় দেড় বছরের নাতি আরাফাতকে (ভিকটিমের পুত্র) দুধ খাওয়ানোর জন্য শাহীনকে ডাকাডাকি করে সাড়া না পেয়ে তার ঘরে প্রবেশ করার চেষ্টা করি। সামনের দরজা বন্ধ থাকায় পিছনের দরজা দিয়ে ভেতরে গিয়ে তার গলা কাটা দেখতে পাই। ঘটনার কিছু সময় আগেও সে টিউবওয়েলে শিশু পুত্রের জামা কাপড় ও প্লেট বাসন পরিষ্কার করেছে।

পার্শ্ববর্তী ঘরের হারেছ (৪৮) জানান, আমি বাড়ির পাশেই কাজ করছিলাম। আমার ছোট মেয়ে ফাহিমার ডাক চিৎকারে ছুটে এসে শাহিনের এই অবস্থা দেখতে পাই।

একই বাড়ির মোঃ শাকিল (২০) জানান, ঘটনার সময় আমি ও আমার বড় ভাই গরুর জন্য খড় প্রস্তুত করছিলাম। শাহীনের ননদ মুক্তার চিৎকারে এসে এ ঘটনা দেখি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে, ওই গৃহবধূর সাথে তার নিকটাত্মীয়ের পরকীয়া সম্পর্ক রয়েছে। ঘটনার সাথে এর যোগসূত্র থাকতে পারে। এছাড়া দীর্ঘদিন ধরে পারিবারিক মতবিরোধ চলছে এবং বেশ ক’দিন ধরে সে অসংলগ্ন আচরণ করছিলো। শাহরাস্তি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ শাহ্ আলম জানান, ঘটনার সংবাদ পেয়ে তাৎক্ষণিক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেঙ্ ও পরে ঘটনাস্থলে পেঁৗছাই। ভিকটিমের পরিবারের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। হাজীগঞ্জ ও কচুয়া সার্কেলের দায়িত্বে থাকা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আফজাল হোসেন বলেন, প্রাথমিকভাবে ওই গৃহবধূর মুখে স্কচটেপ লাগানোর কোনো আলামত পাওয়া যায়নি। কর্মরত চিকিৎসকের সাথে আলাপ করে তার মুখে বা গলার ভিতরে বেস্নড ঢুকানোর আলামত পাওয়া যায়নি। তদন্ত সাপেক্ষে বিস্তারিত বলা যাবে।

উল্লেখ্য, রায়শ্রী দক্ষিণ ইউনিয়নের কুরকামতা গ্রামের ইউনুস মিয়ার বড় ছেলে রাহাতের সাথে ৫ বছর পূর্বে শাহরাস্তি পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের ছিখুটিয়া গ্রামের আবুল কালামের মেয়ে শাহীনের বিয়ে হয়। ইউনুস মিয়ার পরিবারে রাহাত ছাড়াও আল-আমিন (২২) ও অষ্টম শ্রেণি পড়ুয়া একটি কন্যা রয়েছে।