ঢাকা, আজ শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০

এক বৃদ্ধাশ্রমের ৭০ জন বৃদ্ধের প্রাণ কেড়ে নিলো করোনা ভাইরাস

প্রকাশ: ২০২০-০৪-২৯ ২২:৩৯:২৫ || আপডেট: ২০২০-০৪-২৯ ২২:৩৯:২৫

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : করোনা ভাইরাসের বিস্তার ঘটার পর থেকেই একের পর এক দুঃসংবাদ শুনতে শুনতে সারাবিশ্বের মানুষের কাছে বিষয়টা যেন কিছু শরীর সওয়া হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু এতদিন যত খা’রা’প খবর শোনা হয়েছে, তার চেয়েও ভ’য়’ঙ্কর কোনো সংবাদ শুনতে হবে মানুষকে, তা যেন কল্পনাতেও ছিল না। রীতিমত আঁ’তকে উঠতে হলো সারা বিশ্বকে।

যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটনের এক বৃদ্ধাশ্রমে থাকা ৭০ জন বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে করোনা ভাইরাসে আ’ক্রা’ন্ত হয়ে। ফক্স নিউজ জানিয়েছে এ খবর। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এই বৃদ্ধাশ্রমটি অনেক পুরনো হিসেবে পরিচিত। স্টেট ও ফেডারেল কর্মকর্তারা তদ’ন্তে নেমেছেন, ঠিক কিভাবে এই প্রা’ণঘা’তি ভাইরাসটি বৃদ্ধাশ্রমে প্রবেশ করেছে! একই সঙ্গে কেন এতবেশি মৃত্যু ঘটছে, যা চলমান- সে বিষয়টাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

ধা’রণা করা হচ্ছে, করোনা আক্রা’ন্ত এসব বৃদ্ধরা সম্পূর্ণ চিকিৎসা ব’ঞ্চি’ত হয়েছেন। ম্যাসাচুসেটসের এই বৃদ্ধাশ্রমটির নাম হলিওক সোলজার্স। শুধু ওই ৭০জনের মৃত্যু দিয়েই শেষ হচ্ছে না সম্ভবত হলিওক সোলজার্সের করুন পরিণতি। কারণ সেখানে এখনও বাকি থাকা ৮২জন বৃদ্ধও আক্রা’ন্ত করোনা ভাইরাসে। শুধু তাই নয়, আশ্রমটিতে থাকা ৮১জন কর্মচারিও আক্রা’ন্ত কোভিড-১৯ এ। মোটকথা জীবিত ও মৃ’ত মিলিয়ে বৃদ্ধাশ্রমটিতে যত ব্যাক্তি ছিলেন বা রয়েছেন- সবাই করোনায় আক্রা’ন্ত।

অ্যাডওয়ার্ড ল্যাপয়েন্তে নামক এক ব্যক্তির শ্বশুর থাকেন ওই বৃদ্ধাশ্রমে। তিনি বলেন, ”সেখানকার পরি’স্থিতি খুবই ভ’য়ান’ক।” তার শশুরও করোনা আক্রা’ন্ত। ল্যাপয়েন্তে জানিয়েছেন, এই বৃদ্ধাশ্রমে থাকা আরো মানুষ মা’রা যেতে পারেন। তিনি বলেন, ”এখানে বাকি যারা রয়েছেন, তারা আর কখনও সুযোগ (জীবিত থাকার) পাবেন কি না সন্দে’হ।”মো. মাসুদ খান, মুন্সীগঞ্জ : শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌ-রুট দিয়ে ফেরিতে করে পদ্মা পার হচ্ছে শত শত গার্মেন্টকর্মী। বুধবার সকাল থেকে এসব যাত্রীকে কাঁঠালবাড়ি ঘাট থেকে ফেরিতে করে শিমুলিয়া ঘাটে এসে ঢাকার উদ্দেশে বিকল্প যানবাহনে যেতে দেখা গেছে।

আজ বুধবার সকালে সরেজমিন শিমুলিয়া ঘাটে গিয়ে দেখা যায়, শত শত যাত্রী দক্ষিণবঙ্গ থেকে ঢাকায় যাচ্ছে। এসব যাত্রীর অধিকাংশই গার্মেন্টকর্মী। তারা দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন এলাকা থেকে বিকল্প যানবাহনে করে কাঁঠালবাড়ি ঘাটে আসছে। সেখান থেকে ফেরিতে করে শত শত যাত্রী পদ্মা পাড়ি দিয়ে মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার শিমুলিয়া ঘাটে আসছে। করোনার কারণে যাত্রীবাহী পরিবহন বা বাস বন্ধ থাকায় এসব যাত্রী বিকল্প যানবাহনে ঢাকা, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় গন্তব্যে ছুটছে। এসব যানবাহনের মধ্যে রয়েছে, আটোরিকশা, ইয়েলো ক্যাব, রেন্ট-এ-কার, মাইক্রোবাস ও পিকআপ ভ্যানসহ লোকাল নানা ধরনের যানবাহন।

মাওয়া নৌ-পুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জ সিরাজুল কবির জানান, সকালে থেকেই ফেরিতে করে শত শত লোক আসছে শিমুলিয়া ঘাটে। তাদের অধিকাংশই গার্মেন্টকর্মী। মাওয়া ট্রাফিক পুলিশের ইনচার্জ টিআই হিলাল উদ্দিন জানান, বুধবার সকাল থেকেই শত শত গার্মেন্টকর্মী দক্ষিণবঙ্গ থেকে ঢাকার উদ্দেশে ফেরিতে পদ্মা পার হয়ে শিমুলিয়া ঘাটে আসছে। এখান থেকে বিকল্প যানবাহনে তারা গন্তব্যের উদ্দেশে রওনা হচ্ছে। এদের অধিকাংশই গার্মেন্টকর্মী। তিনি আরো জানান, বর্তমানে শিমুলিয়া-কাঁঠা