ঢাকা, আজ শনিবার, ৮ মে ২০২১

ইন্দোনেশিয়ায় কুরআনের হাফিজদের পরীক্ষা ছাড়াই বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি সুযোগ !

প্রকাশ: ২০১৯-০৭-০৮ ১৩:৩৪:০৭ || আপডেট: ২০১৯-০৭-০৮ ১৩:৩৪:০৭

বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি মানেই পরীক্ষা নামক চূড়ান্ত প্রতিযোগিতার সম্মুখীন হওয়া। তারপরও থাকে অনিশ্চিয়তা। প্রতিটি আসনের বিপরীতে প্রতিযোগিতায় নামে বহুসংখ্যক শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে যারা মেধা তালিকায় উঠে আসে ক্রমানুযায়ী তাদেরকেই সুযোগ দেওয়া হয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য। তবে এই নিয়ম থেকে বেরিয়ে আসল দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার মুসলিম প্রধান দেশ ইন্দোনেশিয়া।এবার পরীক্ষা ছাড়াই বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার সুযোগ এনে দিয়েছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। তবে সেটি সবার জন্য ও সব বিষয়ে নয়। নির্দিষ্ট সংখ্যক কিছু বিষয়ে কেবল কুরআনের হাফিজদের পরীক্ষা ছাড়াই বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি সুযোগ দিচ্ছে দেশটি। মুসলিম প্রধান হওয়ার কারণে দেশটির অনেক যুবক কুরআনে হাফিজ হয়েছেন।

অনেকেই খুব অল্প বয়সেই ৩০ পারা কুরআন সম্পূর্ণ মুখস্ত করেন। আর এবার সেই কাজের পুরস্কার পেতে চলেছেন সেই হাফিজরা। ইন্দোনেশিয়ার সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে কুরআনে হাফিজদের পরীক্ষা ছাড়াই ভর্তির সুযোগ করে দিচ্ছে। দেশটির কর্তৃপক্ষ বলছে, ‘সফলতার পথ’ নামক একটি কর্মসূচির অধীনে তারা এই সুবিধা পাবেন।যার আলোকে নির্দিষ্ট কিছু বিষয়ে হাফেজ ছাত্ররা ভর্তি হতে পারবে। ইন্দোনেশিয়ার কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এই কর্মসূচির মাধ্যমে দেশটির সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে শতকরা ১১ শতাংশ ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি হতে পারবে। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ইন্দোনেশিয়ায় কুরআনে হাফিজদের জন্য বিভিন্ন কোর্সে ভর্তি হওয়ার সুযোগ উন্মুক্ত হয়েছে।

কুরআনে হাফিজদের জন্য বিভিন্ন কোর্সে ভর্তির সুযোগ করে দেয়ার তালিকায় ইন্দোনেশিয়ার শীর্ষ বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। ওই তালিকায়- বোগোর কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়সহ আরও বেশ কয়েকটি নামকরা বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। ইন্দোনেশিয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার ক্ষেত্রে এ ধরনের বিশেষ প্রস্তাব নতুন কিছু নয়।গত মাসে দেশটির ন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট ইউনিভার্সিটি ভেটেরান জাকার্তা এক ঘোষণায় ইউটিউবারদের জন্য বিশেষ ভর্তি স্কিম ঘোষণা করে। ওই ঘোষণা অনুযায়ী কোনো ইউটিউবারের কমপক্ষে ১০ হাজার সাবস্ক্রাইবার থাকলে তারা বিশেষ ভর্তি স্কিমের আওতায় ভর্তি হতে পারবে বলে জানায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।সূত্র: জাকার্তা পোস্ট

ইরানের সঙ্গে সম্পর্ক শক্তিশালী করতে প্রস্তুত পাকিস্তান!
ইরানের সঙ্গে সকল ক্ষেত্রে বিশেষ করে অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যিক সহযোগিতা শক্তিশালী করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে পাকিস্তান। দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক উপদেষ্টা আব্দুর রাজ্জাক দাউদ ইসলামাবাদে এক বক্তৃতায় এ আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।তিনি গতকাল (মঙ্গলবার) ইসলামাবাদে ইরান-পাকিস্তান পার্লামেন্টারি ফ্রেন্ডশিপ গ্রুপের সদস্যদের সঙ্গে এক বৈঠকে বলেন, তেহরানের ওপর ওয়াশিংটনের একতরফা নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও ইরানের সঙ্গে বাণিজ্যিক সহযোগিতা অতীতের চেয়ে শক্তিশালী করতে চায় ইসলামাবাদ।তিনি প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সফরসঙ্গী হিসেবে নিজের সাম্প্রতিক ইরান সফরের কথা উল্লেখ করে বলেন, ২০০৬ সালে ইরান ও পাকিস্তানের মধ্যে বাণিজ্য সহযোগিতা বিষয়ক যে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছিল তা বাস্তবায়ন করতে হবে।সাক্ষাতে ইরান-পাকিস্তান পার্লামেন্টারি ফ্রেন্ডশিপ গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমাদ আমিরাবাদি ফারাহানি দু’দেশের মধ্যে ক্রমবর্ধমান সম্পর্কে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, তেহরান সব সময় সকল ক্ষেত্রে ইসলামাবাদের সঙ্গে সহযোগিতা শক্তিশালী করতে চায়।