ঢাকা, আজ বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১

পরীক্ষা দিতে গিয়ে লাশ হয়ে বাড়ি ফিরল তমা

প্রকাশ: ২০১৯-০৬-২৮ ০৩:৪৩:২৯ || আপডেট: ২০১৯-০৭-০৪ ০৯:১৬:৪৫

যশোরের চৌগাছায় মাস্টার্স পরীক্ষা শেষে আর বাড়ি ফেরা হলো না শারমিন সুলতানা তমার। বাড়ি ফিরলো ট্রাক চাপায় পিষ্ট শারমিনে লাশ। শারমিন সুলতানা তমা যশোর সরকারি মাইকেল মধুসূদন কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের মাস্টার্স শেষ বর্ষের ছাত্রী। সে উপজেলার স্বরূপদাহ ইউনিয়নের মাশিলা গ্রামের মাসুদুর রহমানের স্ত্রী এবং চৌগাছা পৌরএলাকার চাঁদপুর গ্রামের আশাদুল ইসলাম মানুর মেয়ে।

নিহতের চাচা তৌহিদুর রহমান দিপ্ত বলেন, বুধবার বিকেল থেকে শারমিনের মাস্টার্স শেষ বর্ষের চুড়ান্ত পরীক্ষা শুরু হয়। প্রথম দিনের পরীক্ষা শেষে বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে তার স্বামীর সাথে একটি ডিসকভার ১৩৫ সিসি মোটরসাইকেলে চড়ে বাড়ি ফিরছিল। পথিমধ্যে যশোর-চৌগাছা সড়কের সলুয়া কলেজের সামনে পৌছালে মোটরসাইকেল থেকে সিটকে পড়ে।এসময় চৌগাছা থেকে যশোরগামী একটি ট্রাক (রংপুর-চ-১১-০২৯৬) চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। এসময় ট্রাকের চালক ও হেলপার পালিয়ে গেলে স্থানীয় ব্যক্তিরা ক্ষুব্ধ হয়ে ট্রাকটি ভাংচুর করে। নিহত তমার রানি খাতুন (৫) ও লামইয়া (২) নামে দুটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

ঘটনাস্থলে থেকে চৌগাছা থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক শাহিনুর রহমান মোবাইল ফোনে জানান, লাশটি উদ্ধার করা হয়েছে এবং ট্রাকটিকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে। তবে ট্রাকের চালক বা হেলপার কাউকে আটক করা যায়নি। এদিকে বৃহস্পতিবার দুপুরে নিহতের জানাযার নামাজ শেষে পারিবারিক কবর স্থানে দাফন করা হয়।