ঢাকা, আজ রোববার, ১১ এপ্রিল ২০২১

২০ টাকার লোভ দেখিয়ে মাদ্রাসা ছাত্রীকে একাধিকবার ধর্ষণ!

প্রকাশ: ২০১৯-০৬-১৯ ১৩:২২:০৮ || আপডেট: ২০১৯-০৬-১৯ ১৩:২২:০৮

কুমিল্লার দেবিদ্বারে ১১ বছরের এক মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে মো. সোহেল (২৪) নামের এক সিএনজি অটোরিকশা চালককে আটক করেছে থানা পুলিশ। মঙ্গলবার তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

সোহেল এলাহাবাদ ইউনিয়নের মোহাম্মদপুর গ্রামের বলাগাজীর বাড়ির শফিকুল ইসলামের ছেলে। ধর্ষিত শিশু (১১) মোহাম্মদপুর আলিম মাদ্রাসার ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রী। মঙ্গলবার বিকালে ওই শিশুর মা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন।

ভুক্তভোগী ওই শিশু জানায়, সোহেল তাকে ঈদের পর থেকে নিয়মিতভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণ করে আসছে। কারও কাছে বললে মেরে ফেলারও হুমকি দিতো।

মামলার এজহারে জানা যায়, চলতি মাসের ৮ জুন ওই শিশুকে ২০ টাকা দেওয়ার কথা বলে সোহেল তার খালি ঘরে নিয়ে যায়। সেখানে ওই শিশুকে ধর্ষণ করে তার হাতে ২০ টাকা দিয়ে বলে কারও কাছে যেন এ ঘটনা না বলে, আর বললে প্রাণে মেরে ফেলবে।

এতদিন ওই শিশু প্রাণের ভয়ে কারও কাছে না বললেও মঙ্গলবার সকালে ফের ওই শিশুকে একই কায়দায় ধর্ষণ করলে মেয়েটি মায়ের কাছে এ ঘটনা খুলে বলে। তারপর ঘটনা প্রকাশ্যে আসে।

ভুক্তভোগী ওই শিশুর মা জানান, সোহেল আমার মেয়েকে ভয় দেখিয়ে নিয়মিত ধর্ষণ করতো। মেয়ে এতোদিন ভয়ে কিছু বলেনি। সকালে আমার মেয়ে অসুস্থবোধ করলে আমি তার কারণ জিজ্ঞাসা করি। পরে আমার মেয়ে এ ধর্ষণের ঘটনা খুলে বললে আমি এলাকার মানুষের সহযোগিতায় থানায় জানাই।

দেবিদ্বার থানার ওসি মো. জহিরুল আনোয়ার জানান, শিশুটিকে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত সোহেলকে আটক করা হয়েছে।